Header ads

ক্ষমতা মানুষকে দুর্নীতিগ্রস্ত করে, আর নিরঙ্কুশ ক্ষমতা মানুষকে চূড়ান্তভাবে দৃর্নীতিগ্রস্ত করে (অ্যাকটন - ১৮৮৭) উক্তিটি ব্যাখ্যা কর ।Power corrupts men, and absolute power corrupts men to the extreme (Acton - 1887) Explain the statement.

 ক্ষমতা মানুষকে দুর্নীতিগ্রস্ত করে, আর নিরঙ্কুশ ক্ষমতা মানুষকে চূড়ান্তভাবে দৃর্নীতিগ্রস্ত করে (অ্যাকটন - ১৮৮৭) উক্তিটি ব্যাখ্যা কর ।

সমাধান।।

ভূমিকা ঃ  ক্ষমতা মানুষকে নিয়ন্ত্রণ ও সম্পদের উপর কর্তৃত্ব করতে বাধ্য করে । ক্ষমতা হলো এমন একটি প্রভাব যার মাধ্যমে নিজ ইচ্ছাকে অন্যের উপর চাপিয়ে দেওয়া হয় । 

        রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রত্যয় হলো ক্ষমতা । অন্যদিকে, বিশ্বব্যাপী রাজনীতিতে ক্ষমতা অপরিহার্য একটি বিষয় । ক্ষমতার প্রভাব দ্বারা খুব সহজেই নিজের ইচ্ছাকে অন্যের উপর চাপিয়ে দেওয়া হয় এবং আধিপত্য বিস্তার করে । কিন্তু ক্ষমতা যদি কোনো ব্যক্তির বেশি হয়, তাহলে স্বাভাবিক ভাবেই সেই ব্যক্তি অত্যাধিক স্বেচ্ছাচারী হয়ে ওঠে । অত্যধিক ক্ষমতাপ্রাপ্ত ব্যক্তি অনেক বেশি দুর্নীতিপরায়ণ হয়, এই কথাটি যথার্থ ও পরিপূর্ণ সত্য । 

নিরঙ্কুশ ক্ষমতা চূড়ান্তভাবে দুর্নীতিগ্রস্ত করে কি না ঃ  একজন রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ছাত্র হিসেবে লর্ড অ্যাকটনের এই বক্তব্যের সাথে আমি অবশ্যই একমত । কারণ, নিরঙ্কুশ ক্ষমতা মানুষকে চরমভাবে দুর্নীতিগ্রস্ত করে । এই কথাটি যথার্থ ও পরিপূর্ণ । নিম্নে লর্ড অ্যাকটনের মতের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করা হলো :

পক্ষপাতিত্ব ঃ সাধারণ ক্ষমতার মাধ্যমেই কোনো লোক পক্ষপাতিত্ব প্রদর্শন করে । অন্যদিকে এই পক্ষপাতের মাধ্যমে দুর্নীতির মাত্রা অধিক পরিমানে বেড়ে যাচ্ছে । কারণ কোনো ব্যক্তি যখন ক্ষমতাপ্রাপ্ত হন, তখনই সমাজ ব্যবস্থাতে দুর্নীতি অত্যাধিক মাত্রায় বেড়ে যায় । তাই নিরঙ্কুশ ক্ষমতা অবশ্যই কোনো ব্যাক্তিকে চূড়ান্তভাবে দুর্নীতিগ্রস্ত করে । 

স্বেচ্ছাচারিতা ঃ স্বেচ্ছাচারিতা মানে হলো কারো একক কর্তত্ব প্রতিষ্ঠা করা । কোনো ব্যক্তির ক্ষমতা যত বেশি হবে সমাজ ব্যবস্থাতে তার প্রভাববিস্তারের মাত্রাও বৃদ্ধি পাবে । 

স্বজনপ্রীতি ঃ রাজনীতি এমন একটি স্থান যেখানে স্বজনপ্রীতি ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে । স্বজনপ্রীতি রাজনীতিতে দুর্নীতির জন্ম দেয় । স্বজনপ্রীতিতে দুর্নীতি মারাত্মক আকার ধারণ করে । এজন্য রাজনীতি থেকে স্বজনপ্রীতি রোধ একান্ত অপরিহার্য ।

একক সিদ্ধান্তের প্রতিফলন ঃ নিরঙ্কুশ ক্ষমতা যে মানুষকে চূড়ান্তভাবে দুর্নীতিগ্রস্ত করে, তার অন্যতম একটি প্রমাণ হলো একক সিদ্ধান্তের প্রতিফলন । কারণ, কোনো রাষ্ট্রের শাসক যখন চরম  ক্ষমতার অধীকারী হন তখন সেই শ্সক সকল ক্ষেত্রেই একক আধিপত্য বা সিদ্ধান্তের প্রতিফন ঘটাতে চান । 

রাজনৈতিক স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার অভাবঃ রাজনীতিতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার অভাব লক্ষ্য করা যায় । যখন রাজনীতিতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা থাকে না তখন রাজনীতি দুর্নীতিগ্রস্ত হয় । ফলে দুর্নীতির কারণে রাষ্ট্রে নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড ঘটে । তাই রাজনীতিতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা থাকা উচিত ।

দলীয়করণ ঃ রাজনীতিতে দল ব্যবস্থার পক্ষ-বিপক্ষ থাকে । ফলে রাজনীতিতে দলাদলির উদ্ভব দেখা দেয় । রাজনীতিতে দলাদলির ফলে দুর্নীতির সৃষ্টি হয় । তাই রাজনীতিতে দলাদলি বন্ধ করতে হবে । 

রাজনৈতিকীকরণ ঃ  চরম ক্ষমতা যে মানুষকে চূড়ান্তভাবে দুর্নীতিগ্রস্ত করে, তার একটি প্রকৃষ্ট উদাহরণ হলো রাজনৈতিকীকরণ । রাজনৈতিকীকরণের কারণ সকল প্রতিষ্ঠানের স্বাভাবিক কর্মকাণ্ডগুলো ব্যাহত এবং কোনো ব্যক্তি রাজনৈতিকীকরণের মাধ্যমে অধিক ক্ষমতা প্রয়োগের পাশাপাশি অত্যাধিক পরিমাণে দুর্নীতিতে লিপ্ত হয়ে যায় ।

উপসংহার ঃ পরিশেষে বলা যায় যে, সমাজের প্রচলিত কথা অনুযায়ী কোনো ব্যাক্তির ক্ষমতা দেওয়ার মাধ্যমে তাকে বুঝা যায় সে কতটুকু সৎ ব্যক্তি । তিনি কি ক্ষমতার অপব্যহার করবেন নাকি দুর্নীতি করবেন তা তার ক্ষমতা দ্বারা বুঝা যাবে । কেননা ক্ষমতাবান ব্যক্তিরা সাধারণত দুর্নীতির সাথেই বেশি জড়িত থাকে । লর্ড অ্যাকটনের সাথে আমিও একমত হয়ে বলতে পারি চরম ক্ষমতা রাষ্ট্রের কল্যাণ করে না । তাই ক্ষমতার অপব্যবহার রোধ করতে হবে ।



দৃষ্টি আকর্ষণঃ 
আমাদের ওয়েবসাইটে (Heart Academy) বিভিন্ন চাকরির বিজ্ঞপ্তিসহ চাকরির পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য বিভিন্ন বিষয় নিয়ে নিয়মিতভাবে লেখা প্রকাশিত হয়ে থাকে। তাই নিয়মিতভাবে আমাদের ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য অনুরোধ রইল। ওয়েব এড্রেস: www.heartacademy.xyz । মনে রাখার জন্য নিচের সোস্যাল মিডিয়া আইকনে ক্লিক করে লেখাটি আপনার টাইম লাইনে সেইভ রাখতে পারেন অথবা আপনার নিকটজনের কাছে শেয়ার করতে পারেন।
......... ধন্যবাদ। 

Heart Academy 

 

কোন মন্তব্য নেই

Maliketh থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.